top of page

মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করার 15X20X12 সূত্র জানলে খুব সহজেই কোটিপতি হতে পারবেন! দেখুন বিস্তারিত

15x20x12 Mutual Fund Investment Strategy: কম্পাউন্ডিং এর জাদুর সাহায্যে কিভাবে টাকা দ্রুত বাড়ে এই নিয়ে হয়তো আপনাদেরকে আর বলতে হবে না। আপনিও যদি কোন মিউচুয়াল ফান্ডের দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগ করেন তাহলে এই কম্পাউন্ডিং এর জাদু দেখতে পাবেন। মিউচুয়াল ফান্ডে দীর্ঘমেয়াদের জন্য বিনিয়োগ (Long Term Investment) করে আপনি খুব সহজে একটি বিরাট তহবিল তৈরি করতে পারবেন। তাই আজ আমরা মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করার একটি কৌশল সম্পর্কে জানব। এই SIP-র মাধ্যমে Mutual Fund-এ বিনিয়োগ করার কৌশলের নাম হলো 15x20x12 বিনিয়োগ কৌশল। এই সূত্র মেনে বিনিয়োগ করলে তাহলে খুব সহজেই কোটিপতি হতে পারবেন। তাহলে আসুন দেরি না করে বিস্তারিত জেনেনি বিনিয়োগ করার এই নিয়ম সম্পর্কে। 

মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করার 15x20x12 সূত্র 

শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করার চেয়ে মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করা অনেকটা কম ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করা হয়। এতে আপনাকে বাজারের খবরাখবর রাখার জন্য সময় বের করতে হয় না। এইসব বিষয় মাথায় রেখে অনেকেই শেয়ার বাজারের বদলে মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করা বেশি পছন্দ করে থাকে। তাই আজ আমরা মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করার একটি কৌশল (Mutual Fund Investment Strategy) সম্পর্কে জানব। আপনি যদি বিনিয়োগ করার এই 15x20x12 সূত্র মেনে চলেন তাহলে খুব সহজে কোটিপতি হতে পারবেন। মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগের এই কৌশল সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে। 

15x20x12 Mutual Fund Investment Strategy: মিউচুয়াল ফান্ডের 15x20x12 বিনিয়োগ কৌশলের ’15’ এর অর্থ হলো 15 বছরের জন্য বিনিয়োগ করা। এখানে ’20’ বলতে বোঝায় প্রতি মাসে 20 হাজার টাকা বিনিয়োগ এবং ’12’ এর অর্থ হলো গড় 12 শতাংশ রিটার্ন। অর্থাৎ এই কৌশল অনুযায়ী আপনাকে প্রতি মাসে 20 হাজার টাকা করে SIP করে 15 বছরের জন্য বিনিয়োগ করতে হবে। আপনি চাইলে 20 হাজার টাকাকে একাধিক মিউচুয়াল ফান্ড স্কিমে ভাগ করে বিনিয়োগ করতে পারেন। তবে আপনাকে এমন ফান্ডে বিনিয়োগ করতে হবে যেন গড় রিটার্ন 12 শতাংশ হয়। 


এই কৌশলে বিনিয়োগ করে সহজেই কোটিপতি হতে পারেন 

মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করার 15x20x12 কৌশল অনুযায়ী, আপনি যদি এমন একটি মিউচুয়াল ফান্ডে প্রতি মাসে 20 হাজার টাকা করে 15 বছরের জন্য SIP করেন এবং আপনি সেখান থেকে যদি গড় 12 শতাংশ রিটার্ন পেয়ে থাকেন, তাহলে খুব সহজে কোটিপতি হতে পারবে। প্রতিমাসে 20 হাজার টাকা করে 15 বছরে আপনার মোট বিনিয়োগ করা হবে 36,00,000 টাকা। 15 বছর পর গড় 12 শতাংশ সুদের হার অনুযায়ী এতে মোট 64,91,520 টাকা সুদ পাবেন। অর্থাৎ আপনি 15 বছর পর মোট 1,00,91,520 টাকার মালিক হবেন।

Comments


bottom of page