top of page

সন্তানের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করতে বিনিয়োগ করুন এই ফান্ডে, সন্তানের বিবাহ ও পড়াশোনার খরচের চিন্তা শেষ।

প্রত্যেকটি বাবা মায়ের স্বপ থাকে তাঁর সন্তানদের নিয়ে। শিশুর উচ্চ শিক্ষা ও তার প্রতিটি স্বপ্ন পূরণের জন্য শিশুর জন্মের পর থেকেই প্রত্যেক বাবা মাকে আর্থিক পরিকল্পনা করে ফেলা উচিত। যদি তা না হয়, তাহলে পরবর্তী গিয়ে সমস্যায় পড়তে পারেন। বর্তমানে মূল্যবৃদ্ধি যেভাবে বাড়ছে তাতে করে অনেকেই শিশুর ভবিষ্যৎ সুরক্ষার জন্য মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ শুরু করেছেন। মিচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ দীর্ঘমেয়াদী হওয়ার কারণে ভালো রিটার্ন পাওয়া যায়।


আমাদের দেশে এমন অনেক মিউচুয়াল ফান্ড রয়েছে, যা বিশেষ ভাবে শিশুদের জন্য তৈরি করা হয়েছে। এই ধরণের মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করলে শিশুর বয়স বাড়ার সাথে সাথে আর্থিক নিরাপত্তাও বাড়ে। আজ সন্তানের ভবিষ্যৎ সুন্দর করবে এমন দুটি মিউচুয়াল ফান্ড সম্পর্কে কথা বলবো, যার নাম এসবিআই ম্যাগনাম চিলড্রেনস বেনিফিট ফান্ড এবং ইউটিআই চিলড্রেনস ক্যারিয়ার ফান্ড-ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান। চলুন আজকের প্রতিবেদন থেকে এই দুটি মিউচুয়াল ফান্ড সম্পর্কে জেনে নিন।

এসবিআই ম্যাগনাম চিলড্রেনস বেনিফিট ফান্ড

এসবিআই এর একটি দুর্দান্ত মিউচুয়াল ফান্ড হলো ম্যাগনাম চিলড্রেনস বেনিফিট ফান্ড। যেখানে আপনি আপনার সন্তানের জন্য প্রতি মাসে অল্প অল্প পুঁজি বিনিয়োগের মাধ্যমে একটি দীর্ঘমেয়াদী ফান্ড তৈরি করতে পারেন। সন্তানদের সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য এখানে বিনিয়োগ করতে পারেন। ২০২০ সালে এই স্কীমটি চালু হওয়ার পর থেকে এখনো পর্যন্ত দুর্দান্ত রিটার্ন দিয়েছে। এখানে নুন্যতম ৫০০০ টাকা জমা করতে পারেন। কিংবা প্রতি মাসে নুন্যতম ৫০০ টাকা দিয়েও এই বিনিয়োগ শুরু করা যায়। তবে বিনিয়োগের কোনো সর্বোচ্চ সীমা নেই। স্কীমটি লক ইন পিরিয়ড সন্তানের প্রাপ্ত বয়স হওয়া পর্যন্ত কিংবা ৫ বছর। যেটি আগে হবে সেটিই গণ্য করা হবে। গত তিন বছরে এই ফান্ডে বিনিয়োগ করে ৩০ শতাংশ রিটার্ন পাওয়া গিয়েছে।



ইউটিআই চিলড্রেনস ক্যারিয়ার ফান্ড-ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান

সন্তানদের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করার আরো একটি দুর্দান্ত মিউচুয়াল ফান্ড হলো ইউটিআই-এর চিলড্রেনস ক্যারিয়ার ফান্ড-ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান। সন্তানের ক্যারিয়ার, পড়াশোনা, বিয়ে কিংবা দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার জন্য খুব ভালো ফান্ড এটি। ১৯৯৩ সালে এই ফান্ড চালু হয়েছিল অর্থাৎ খুব পুরানো একটি ফান্ড এটি। বিনিয়োগের ৫ বছর পর কিংবা সন্তানদের প্রাপ্ত বয়স হওয়ার পর এই ফান্ড থেকে টাকা তুলতে পারবেন। এই ফান্ডে বিনিয়োগের জন্য আপনার সন্তানের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকাটা প্রয়োজন। এখনে ৫০০ টাকা দিয়ে এসআইপি বিনিয়োগ শুরু করতে পারেন। আর এককালীন বিনিয়োগ করতে চাইলে নুন্যতম ৫০০০ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। তবে বিনিয়োগের কোনো সর্বোচ্চ সীমা নেই। গত ৩ বছরে এই ফান্ড থেকে ৪৮ শতাংশের বেশি রিটার্ন পাওয়া গিয়েছে।

প্রসঙ্গত, মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ আর্থিক ভাবে ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে। তাই বিনিয়গের আগে অবশ্যই শর্তাবলী পড়ে তবেই মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করবেন। আমাদের পেজ শুধুমাত্র খবর আপনার কাছে পৌঁছে দেয়।




Yorumlar


bottom of page