top of page

Google Play Store Apps: গুগল প্লে স্টোর থেকে সরানো হল ১০টি ভারতীয় অ্যাপ, কিন্তু কেন?

শোনা যাচ্ছে, বেশ কয়েকটি ম্যাট্রিমোনিয়াল অ্যাপ, ভিডিও স্ট্রিমিং অ্যাপ, পডকাস্ট সংক্রান্ত অ্যাপ এবং নিয়োগ অর্থাৎ রিক্রুটমেন্ট অ্যাপ গুগল প্লে স্টোর থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

প্লে স্টোর (Google Play Store) থেকে ১০টিরও বেশি ভারতীয় অ্যাপ (Indian Apps) সরিয়ে দিয়েছে গুগল কর্তৃপক্ষ। বিলিং পলিসি (Billing Policy) ঠিকভাবে মেনে না চলার কারণে মার্কেটপ্লেস থেকে এই অ্যাপগুলি সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তালিকায় রয়েছে ভারত ম্যাট্রিমনি, অল্ট বালাজি, কুকু এফএম, শাদি ডট কমের মতো জনপ্রিয় এবং পরিচিত অ্যাপ। গুগল কর্তৃপক্ষ একটি ব্লগ পোস্টে নিশ্চিত করে জানিয়েছে প্লে স্টোর থেকে ১০টি ভারতীয় অ্যাপ সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে কোন কোন অ্যাপ সরিয়ে নেওয়া হয়েছে সেই নামের নির্দিষ্ট তালিকা এখনও আনুষ্ঠানিক ভাবে গুগলের তরফে প্রকাশ করা হয়নি। তবে শোনা যাচ্ছে, বেশ কয়েকটি ম্যাট্রিমোনিয়াল অ্যাপ, ভিডিও স্ট্রিমিং অ্যাপ, পডকাস্ট সংক্রান্ত অ্যাপ এবং নিয়োগ অর্থাৎ রিক্রুটমেন্ট অ্যাপ গুগল প্লে স্টোর থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু নির্দিষ্ট ভাবে নাম জানা যায়নি। 

ম্যাট্রমোনিয়াল অ্যাপে কোপ 

ভারত ম্যাট্রমোনি এবং তার বিভিন্ন সাবসিডারি বা সহকারী অ্যাপ অর্থাৎ তেলুগু ম্যাট্রমিনি, তামিল ম্যাট্রিমনি, মারাঠি ম্যাট্রমোনি- এগুলি গুগল প্লে স্টোর থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। আর একটি পরিচিত এবং জনপ্রিয় ম্যাট্রমোনিয়াল অ্যাপ হল Shaadi.com, এটিও গুগল প্লে স্টোর থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। 

ডেটিং অ্যাপ এবং ভিডিও স্ট্রিমিং অ্যাপ 

ডেটিং অ্যাপ যেমন QuackQuack এবং Truly Madly- এগুলিও সরানো হয়েছে গুগল প্লে স্টোর থেকে। এছাড়াও ভিডিও স্ট্রিমিং অ্যাপ যেমন Alt Balaji এবং Stage- এই দুই অ্যাপও বাদ গিয়েছে গুগল প্লে স্টোর থেকে। এই তালিকায় রয়েছে Kuku FM নামের একটি পডকাস্ট অ্যাপ, কর্মক্ষেত্রে নিয়োগ সংক্রান্ত অ্যাপ Naukri.com, Jeevsathi অ্যাপ, 99 acres অ্যাপ- এগুলির নামও বাদ গিয়েছে। 

কেন গুগল প্লে স্টোর থেকে এইসব ভারতীয় অ্যাপ সরিয়ে দেওয়া হয়েছে

গুগলের বিলিং পলিসি সঠিকভাবে অনুসরণ করেনি উল্লিখিত ভারতীয় অ্যাপগুলি। তার জেরেই গুগল প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপগুলিকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। গুগলের একটি ব্লগ পোস্টে বলা হয়েছে যেসব অ্যাপের নাম সরানো হয়েছে তারা আদালতের থেকে অন্তর্বর্তী সুরক্ষা নেওয়ার পথ বেছে নিয়েছে। যদিও সুপ্রিম কোর্ট এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে চায়নি। গুগল প্লে স্টোরের অন্যান্য অ্যাপ যে বিলিং সিস্টেম মেনে চলে সেটাই লাঘু করতে বলা হয়েছে। জানা গিয়েছে, গুগল এই অ্যাপগুলিকে তিন বছরেরও বেশি সময় দিয়েছিল বিকল্প তৈরির জন্য। এমনকি সুপ্রিম কোর্টের অর্ডারের পরেও অতিরিক্ত তিন সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তার পরেও গুগলের বিলিং পলিসির নিয়ম-নীতির উল্লঙ্ঘন হওয়ায় কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে গুগল কর্তৃপক্ষ। তবে এখন যাঁদের ফোনে এইসব অ্যাপ ডাউনলোড রয়েছে সেগুলি কাজ করবে। এর পাশাপাশি অন্যান্য অ্যান্ড্রয়েড বিকল্প মাধ্যমে নিজেদের অ্যাপ নথিভুক্ত করতে পারবেন নির্মাতারা। 

Comments


bottom of page