top of page

কলকাতার কোম্পানির IPO-তে লাভের সুযোগ! GPT হেলথকেয়ারের শেয়ারের দাম মাত্র 186 টাকা

IPO To Buy: আইপিও-তে বিনিয়োগকারীদের জন্য সুখবর। এবার সস্তায় IPO -তে অর্থ বিনিয়োগের সুযোগ করে দিচ্ছে কলকাতার কোম্পানি GPT Healthcare। বৃহস্পতিবার থেকে সংস্থার আইপিও-তে বিনিয়োগের সুযোগ খুলেছে, চলবে 26 ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

বাজারে ফের সাড়া ফেলেছে স্বাস্থ্যসেবা খাতের একটি কোম্পানির আইপিও। বহু বিনিয়োগকারী রয়েছেন, যারা আইপিও-তে বিনিয়োগের সুযোগ খুঁজছেন। তাঁদের জন্য এই আইপিওটি সেরা অপশন হতে পারে। স্বাস্থ্যসেবা খাতে জিপিটি হেলথকেয়ার লিমিটেড যথেষ্ট শক্তিশালী একটি কোম্পানি। এই সংস্থাটিই বৃহস্পতিবার থেকে আইপিও-তে আবেদনের জন্য দরজা খুলে দিয়েছে। কোম্পানির তরফে জানানো হয়েছে এই আইপিও 26 ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত খোলা থাকবে। অর্থাৎ 22 থেকে 26 ফেব্রুয়ারির মধ্যে বিনিয়োগকারীদের অর্থ বিনিয়োগ করার সুযোগ রয়েছে।



জিপিটি হেলথকেয়ার লিমিটেড ILS হসপিটালস ব্র্যান্ডের আওতায় হাসপাতাল চালায়। এই IPO-র জন্য কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি দাম নির্ধারণ করেছে 177-186 টাকা। কোম্পানির তরফে জানানো হয়েছে, 27 ফেব্রুয়ারি কোম্পানির শেয়ার বিনিয়োগকারীদের জন্য বরাদ্দ করা হবে। অন্যদিকে শেয়ার বাজারে জিপিটি হেলথকেয়ারের শেয়ার লিস্টেড হবে 29 ফেব্রুয়ারি।


GPT Healthcare Ltd IPO সম্পর্কে আরও তথ্য

কোম্পানির দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এই আইপিওর প্রাইস ব্যান্ড রয়েছে 177 থেকে 186 টাকার মধ্যে। আইপিও-র লট সাইজ রয়েছে 80টি শেয়ার। অর্থাৎ আইপিও -র একটি লটে 80টি শেয়ার থাকবে। যার সহজ অর্থ হল IPO-তে বিনিয়োগকারীদের কমপক্ষে 80টি শেয়ার কিনতেই হবে। বিনিয়োগকারীদের সর্বনিম্ন 14880 টাকা বিনিয়োগ করতেই হবে।


এই ইস্যুর আকার রয়েছে 525.14 কোটি টাকা। এর মধ্যে রয়েছে 485.14 কোটি টাকার শেয়ার শেয়ার রয়েছে অফার ফর সেলের আওতায়। 40 কোটি টাকার নতুন ইকুইটির অফার রয়েছে। কোম্পানির শেয়ার NSE ও BSE দুই জায়গাতেই লিস্টেড হবে। SEBI- র কাছে জমা দেওয়া DRHP অনুসারে, IPO থেকে পাওয়া টাকার 30 কোটি অর্থ ঋণ পরিশোধের কাজে ব্যবহার করা হবে। এছাড়াও বাকি অর্থ অন্য কাজে ব্যবহার করা হবে।


উল্লেখ্য বিষয় হল, জিপিটি হেলথকেয়ার 2000 সালে কলকাতায় নিজেদের পরিষেবা শুরু করেছিল মাত্র 8 শয্যার হাসপাতাল দিয়ে। বর্তমানে সেই সংস্থাটিই 561 শয্যার ক্ষমতা সহ চারটি সুসজ্জিত হাসপাতাল পরিচালনা করছে। বিশেষজ্ঞদের একাংশ এই IPO- তে বিনিয়োগের জন্য গ্রিন সিগন্যাল দিচ্ছেন।


(বিশেষ দ্রষ্টব্য: আইপিও- তে বিনিয়োগের অর্থ হল শেয়ার বাজারে অর্থ বিনিয়োগ করা। মনে রাখতে হবে এই বিনিয়োগ বাজারের ওঠানামার সঙ্গে সঙ্গে কম বা বেশি হতে পারে। IPO-তে বিনিয়োগে ঝুঁকি রয়েছে। ব্যক্তিগত ভাবে এক বা একাধিক বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করে তবেই অর্থ বিনিয়োগ করা উচিত।)

Comments


bottom of page