top of page

ইনকাম ট্যাক্স রিটার্নে আসছে বদল! ১ এপ্রিল থেকে কত আয়ে দিতে হবে কত ট্যাক্স

আর মাত্র কয়েক ঘন্টা, আর তারপরেই শুরু হয়ে যাবে নতুন অর্থবর্ষ। আগামী ১ এপ্রিল থেকে ২০২৪-২৫ অর্থবর্ষ শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন ক্ষেত্রে আসবে বিভিন্ন পরিবর্তন। এই সকল পরিবর্তনের মধ্যে আবার রয়েছে আয়কর রিটার্ন (Income tax Slab Changes) জমা দেওয়া সংক্রান্ত পরিবর্তন। টাকা পয়সা সংক্রান্ত এই পরিবর্তন স্বাভাবিকভাবেই আমজনতার পকেটে সরাসরি প্রভাব ফেলবে।

কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে ২০২৩ সালে বাজেট পেশ করার সময় কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর নির্মলা সীতারামন যে সকল ঘোষণা করেছিলেন তার মধ্যে আয়কর সংক্রান্ত একাধিক নীতির উল্লেখ করা হয়েছে। সেই সকল নীতি আগামী ১ এপ্রিল থেকে লাগু হবে। নতুন নীতি লাগু হলে আয়কর পরিকাঠামোয় চলে আসবে আমূল পরিবর্তন। নতুন নিয়ম অনুসারে যদি কোন ব্যক্তি পুরাতন আয়কর কাঠামো বেছে না নেন তাহলে নিজে থেকেই ওই ব্যক্তির আয়কর কাঠামো নতুন আয়কর কাঠামোর আওতায় পড়ে যাবে।

২০২৪ সালের ১ এপ্রিল থেকে নতুন যে নিয়ম লাগু হচ্ছে সেই নিয়ম অনুযায়ী বেসিক আয়কর ছাড় ২.৫ লক্ষ টাকা থেকে বেড়ে হচ্ছে ৩ লক্ষ টাকা। অন্যদিকে নতুন যে কর কাঠামোর কথা উল্লেখ করা হয়েছে তাতে সর্বোচ্চ আয়করের পরিমাণ হলো ৩০%। ১৫ লক্ষ টাকা বা তার বেশি তাদের এই আয়কর জমা দিতে হবে। এছাড়াও আয়কর বাঁচানোর জন্য আগের মতো আর জটিল অংক বা হিসেব-নিকেশ কষতে হবে না।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী ৩ লক্ষ টাকা রোজগার পর্যন্ত কোনো কর দিতে হবে না। এরপর ৬ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয়কর হিসেবে ধার্য হবে ৬ শতাংশ। পরের স্ল্যাব অনুযায়ী ৯ লক্ষ টাকা পর্যন্ত দিতে হবে ১০ শতাংশ। পরের স্ল্যাব ১২ লক্ষ টাকা আয়ের উপর ইনকাম ট্যাক্স দিতে হবে ১৫ শতাংশ। পরের স্ল্যাব ১৫ লক্ষ টাকা রোজগার পর্যন্ত দিতে হবে ২০ শতাংশ এবং ১৫ লক্ষ টাকার উপরে রোজগারের ক্ষেত্রে ইনকাম ট্যাক্স হিসেবে দিতে হবে ৩০ শতাংশ।

অন্যদিকে নতুন আয়কর কাঠামোয় সার চার্জ ৩৭ শতাংশ থেকে কমিয়ে করা হয়েছে ২৫ শতাংশ। যে সকল ব্যক্তিদের বছরে রোজগার পাঁচ কোটি টাকা তারা এই সুবিধা পাবেন। অন্যদিকে ৫০ লক্ষ টাকা থেকে শুরু করে এক কোটি টাকা পর্যন্ত বার্ষিক রোজগারের ক্ষেত্রে সার চার্জ আগের মতই ১০% রাখা হয়েছে। এক কোটি টাকা থেকে ২ কোটি টাকা রোজগারের উপর সার চার্জ দিতে হবে ১৫%। পরবর্তী স্ল্যাবের জন্য সার চার্জ হিসাবে লাগবে ২৫ শতাংশ।

Comments


bottom of page