top of page

সত‍্যিই ‘ডবল’ হবে টাকা! বিনিয়োগ করুন এই ৩ সরকারী প্রকল্পে, এখনই জেনে নিন বিশদে

শুধুমাত্র রোজগার নয়, অর্থ সঞ্চয় করাও জরুরি। আর্থিক সঞ্চয় ভবিষ‍্যতের সুরক্ষার জন‍্য অত‍্যন্ত প্রয়োজনীয়। কিন্তু কোন খাতে বিনিয়োগ করা উচিত? কোথায় পাওয়া যাবে সেরা রিটার্ন? বিনিয়োগের ক্ষেত্রে এমন হাজারো জিজ্ঞাসা থেকেই যায়।

নিজের কষ্টার্জিত অর্থ বিনিয়োগের আগে সতর্ক থাকা অত‍্যন্ত জরুরি। ভুল জায়গায় বিনিয়োগ করলে জলাঞ্জলি যেতে পারে সমস্ত সঞ্চয়।


কিন্তু জানেন কি এমন বেশ কয়েকটি সরকারি স্কিম রয়েছে যেখানে বিনিয়োগ করে আপনি নিশ্চিত রিটার্ন পেতে পারেন? এমনকী দ্বিগুণ রিটার্নও মিলতে পারে।

পিপিএফ: সরকারি আর একটি সুবিধাজনক প্রকল্প হল পিপিএফ বা পাবলিক প্রফিডেন্ট ফান্ড। পিপিএফে সুদের হার ৭.১ শতাংশ। দীর্ঘমেয়াদী আর্থিক লক্ষ্য পূরণের জন্য পিপিএফ অত‍্যন্ত ভাল। কর সাশ্রয়ের ক্ষেত্রেও এই স্কিমটি উপকারী। এতে ১০ বছরেরও কম সময়ে টাকা দ্বিগুণ হয়ে যাবে।


কিষাণ বিকাশ পত্র: আর্থিক বিনিয়োগের জন‍্য কিষাণ বিকাশ পত্র একটি দুর্দান্ত স্কিম। কিষাণ বিকাশ পত্রে এখন বছরে ৭.৫ শতাংশ হারে সুদ দেওয়া হয়। এই স্কিমে অর্থ বিনিয়োগ করলে, কয়েক বছরেই জমা টাকা দ্বিগুণ রিটার্ন পাওয়া সম্ভব।


কিষাণ বিকাশ পত্রে পাওয়া যায় আরও একটি বড় সুবিধা। এই প্রকল্পে বিনিয়োগের ন্যূনতম সীমা হল ১০০০ টাকা। পাশাপাশি লক্ষাধিক টাকা পর্যন্ত সর্বাধিক বিনিয়োগ করতে পারেন।


এটি একক বিনিয়োগ প্রকল্প। অর্থাৎ আপনি এই বিনিয়োগ প্রকল্পে একবারই বিনিয়োগ করতে পারেন। বারবার কিস্তিতে টাকা জমা করার দরকার নেই। এই স্কিমে টাকা দ্বিগুন হতে সময় লাগবে ৯ বছর ৭ মাস।


সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা: মহিলাদের সঞ্চয়ের জন‍্য একটি অন‍্যন‍্য স্কিম হল সুকন‍্যা সমৃদ্ধি যোজনা। সরকারের একটি ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্প হল সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা।


এই যোজনায় ৮.২ শতাংশ সুদের হার পাওয়া যায়। কন্যাদের ভবিষ্যতের জন্য শিক্ষা এবং বিবাহের ব্যয় বহনে সহায়তার লক্ষ্যেই সুকন্যা যোজনা সূত্রপাত। ১০ বছরের কম বয়সী মেয়েদের জন‍্য রয়েছে সুকন‍্যা যোজনা প্রকল্প। এই প্রকল্পের অধীনে বার্ষিক সর্বনিম্ন ২৫০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ১.৫ লক্ষ টাকা জমা করা যায়।

Comments


bottom of page