top of page

রিটার্ন জমা না করা দেড় কোটি করদাতার কাছে এবার জবাবদিহি চাইবে আয়কর দপ্তর!

যে সমস্ত ব্যক্তি আয়কর রিটার্ন (Income return) জমা করেননি এবারে তাঁদের কাছে জবাবদিহি চাইবে আয়কর দপ্তর (Income Department)। ১৫ এপ্রিল থেকে এই প্রক্রিয়া শুরু হবে। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে এমনই দাবি করা হয়েছে। জানা যাচ্ছে, দেড় কোটিরও বেশি মানুষকে চিহ্নিত করা হয়েছে, যাঁরা কর দেওয়ার মতো অর্থ রোজগার করেন কিংবা টিডিএস কাটার পরেও রিটার্ন জমা দেননি। এবার তাঁদের কাছেই পৌঁছবে কেন্দ্রীয় প্রত্যক্ষ কর পর্ষদ তথা সিবিডিটি।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক আয়কর বিভাগের এক কর্তার দাবি, বহু ব্যক্তিরই টিডিএস কাটা হয়েছে। তবুও তাঁরা ফাইল রিটার্ন করেননি। ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে মোট করদাতার সংখ্যা ছিল প্রায় ৮ কোটি ৯০ লক্ষ। কিন্তু রিটার্ন ফাইল করেছেন ৭ কোটি ৪০ লক্ষ মানুষ। এর মধ্যে রিভাইজড রিটার্নও রয়েছে। মনে করা হচ্ছে, সব মিলিয়ে ১ কোটি ৯৭ লক্ষ করদাতা রয়েছেন, যাঁদের টিডিএস কাটা সত্ত্বেও তাঁরা রিটার্ন জমা করেননি।

গত ফেব্রুয়ারিতেই এই করদাতাদের কাছে নোটিসও পাঠানো হয়েছিল বলে দাবি আয়কর দপ্তরের। কিন্তু এবার দপ্তরের তরফে আধিকারিকদের কাছে নাকি নির্দেশ, যথাযথ তথ্য ও নথি নিয়ে ওই করদাতাদের কাছে পৌঁছতে হবে। এবং তাঁদের কাছে জানতে চাওয়া হবে, কেন তাঁরা রিটার্ন ফাইল করেননি। জানা গিয়েছে, সিবিডিটির কাছে খবর রয়েছে, অন্তত ৮ থেকে ৯ হাজার করদাতা রয়েছেন যাঁরা বিপুল অঙ্কের অর্থ জমা করেছিলেন এবং যাঁদের কাছে নোটিস পাঠানো হয়েছিল।

সংবাদমাধ্যমের দাবি, যোগাযোগের পর দেখা হবে কোন করদাতারা ইচ্ছাকৃত ভাবেই রিটার্ন ফাই করেননি। তাঁদের কড়া জরিমানার মুখে পড়তে হবে। তবে যেসব করদাতারা যথাযথ কারণ দেখাতে পারবেন রিটার্ন না জমা করার, তাঁদের নতুন করে রিটার্ন জমা করার সুযোগ দেওয়া হবে।

Comentarios


bottom of page