top of page

১ লাখ থেকে বেড়ে ৩.৭৯ কোটি টাকা; এই ৫ মিউচুয়াল ফান্ডে মিলেছে ১০০ গুণ রিটার্ন

১০০ গুণ রিটার্ন! শুনলে চমকে যেতে হয় বইকি। কিন্তু ৫ মিউচুয়াল ফান্ড এমন কামাল দেখিয়েছে। মালামাল হয়ে গিয়েছেন বিনিয়োগকারীরা। দীর্ঘমেয়াদে মাল্টিব্যাগার মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগে ভাগ্য বদলে গিয়েছে অনেকের।

অনেক স্মল ক্যাপ এবং পেনি স্টকের ১০০ গুণ রিটার্ন দেওয়ার রেকর্ড রয়েছে। সেটাই এবার করে দেখিয়েছে মাল্টিব্যাগার মিউচুয়াল ফান্ড। অর্থাৎ এই ফান্ডে ২০ থেকে ৩০ বছর আগে যদি কেউ ১ লাখ টাকা বিনিয়োগ করতেন, তাহলে আজ তিনি কোটিপতি হয়ে যেতেন। দেখে নেওয়া যাক সেই ফান্ডগুলোর তালিকা।

এইচডিএফসি ইএলএসএস ট্যাক্স সেভার স্কিম: এই স্কিমে প্রতি বছর গড়ে ২৩.৭১ শতাংশ হারে রিটার্ন মিলেছে। অর্থাৎ ২৮ বছর আগে এই স্কিমে ১ লাখ টাকা বিনিয়োগ করলে আজ তা বেড়ে ৩.৭৯ কোটি টাকা হত।

নিপ্পন ইন্ডিয়া গ্রোথ ফান্ড: এই স্কিমে প্রতি বছর গড়ে রিটার্ন মিলেছে ২২.৬৪ শতাংশ হারে। অর্থাৎ ২৮ বছর আগে ১ লাখ টাকা বিনিয়োগ করলে আজ তা বেড়ে ৩.২ কোটি টাকা হত।

ফ্র্যাঙ্কলিন ইন্ডিয়া প্রাইমা ফান্ড: এই ফান্ড প্রতি বছ্র ১৯.৩৫ শতাংশ হারে গড় রিটার্ন দিয়েছে। অর্থাৎ ৩০ বছরে ১ লাখ টাকা বেড়ে ২.১ কোটি টাকা হয়েছে।


এসবিআই ম্যাগনাম গ্লোবাল ফান্ড: এসবিআই ম্যাগনাম গ্লোবাল ফান্ড ২০০১ সাল থেকে প্রতি বছর গড়ে ২৪ শতাংশ রিটার্ন দিয়েছে। এই ফান্ডের টাকা ভারতের বাজারে তালিকাভুক্ত বহুজাতিক কোম্পানিতে বিনিয়োগ করা হয়। এর বাইরে কিছু বিদেশি স্টকেও বিনিয়োগ করা হয়। এই ফান্ড ১৯৯৪ সালে শুরু হয়েছিল। ২০০১ সালে ১ লক্ষ টাকার বিনিয়োগ করলে আজ তা প্রায় ৭৪ লক্ষ টাকা হত।


আইসিআইসিআই প্রুডেন্সিয়াল টেকনোলজি ফান্ড : আইসিআইসিআই প্রুডেন্সিয়াল টেকনোলজি ফান্ড গত দুই দশকে চমৎকার রিটার্ন দিয়েছে। গত ২০ বছরে গড় রিটার্নের হার ২৪ শতাংশ। ২০০১ সালে যদি কেউ এই ফান্ডে ১ লাখ টাকা বিনিয়োগ করতেন, তাহলে আজ তা বেড়ে প্রায় ৭৫ লক্ষ টাকা হয়ে যেত।

Comments


bottom of page